নির্বাচন এলে মনে হয় যেন একটা যুদ্ধ ক্ষেত্র- সিইসি

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি.
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি নির্বাচনে আসে নাই সেটা তাদের রাজনৈতিক ব্যাপার। আমি নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনের ক্ষেত্র তৈরি করি। সব দল নির্বাচনে অংশ গ্রহন করলে ভাল হতো। নির্বাচন এলে মনে হয় যেন একটা যুদ্ধ ক্ষেত্র। ব্যাপক প্রস্তুতি। বন্ধুক নিয়ে যেতে হয়, লাঠি নিয়ে যেতে হয়। অনেক লোক থাকতে হয়,পাহারা দিতে হয়,কিনা কি হয় এই গুলো দেখার জন্য। শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে নির্বাচন করা উচিত। এই পরিস্থিতিটা আমি মনে করি গণতান্ত্রিক দেশে কাম্য নয়। বিদেশে বাংলাদেশের মতো নির্বাচন হয় না। আপনারা জানের উন্নত দেশে নির্বাচন হলে,সেখানে কোন কিছুর প্রয়োজন হয় না। একসময় বাংলাদেশে পরিবেশ পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে। পুলিশ ও র‌্যাব প্রয়োজন হবে না।
তিনি বলেন,যারা মিডিয়ায় কাজ করে নির্বাচনে তাদের ভূমিকা একান্ত প্রয়োজন। বিশেষ করে সংখ্যালঘু সম্প্রাদায়ের লোকজন নিরাপদে ভোট দিয়ে বাড়ি ফিরতে পারে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।
বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা,সাংবাদিকদেও সাথে ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বিষয়ে মতবিনিময় সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
নির্বাচনে বিএনপি অংশ গ্রহন না করায় নির্বাচন অর্থবহ হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন,জনগণ ভোট দিলে,অর্থবহ। ভোটারা ভোট দিয়ে একজন জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করলে সেটাই অর্থবহ নির্বাচন।’
আরেক এক প্রশ্নের জবাবে তিনি, নির্বাচনে আমরা শুধু স্থানীয় প্রশাসনকে কিছু নির্দেশনা দিয়ে থাকি। তারা নির্বাচন পরিচালনা করেন। প্রশাসনের কর্মকর্তাদের ডি-সেন্টালাইজ করে দায়িত্ব দেওয়া হয়।
সুতরাং নির্বাচন সুষ্ঠ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সব সদস্য ও নির্বাচনি কর্মকর্তাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে।’
মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজারের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রুকন উদ্দিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল, ৪৬ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লে:কর্ণেল আরিফুল হক ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত ইউএনও ও বিভিন্ন থানার অফিসার ইনর্চাজ।
শেয়ার করুন