বাঘডাশের ৫ ছানা ফিরে পেল আপন ঠিকানা

 

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :: প্রাণে বেঁচে গেলো পরিবেশের জন্য উপকারী বিপন্ন প্রজাতির নিশাচর এবং বৃক্ষচারী প্রাণী বাঘডাশের ৫টি ছানা। বন্যপ্রাণীপ্রেমী স্থানীয় ভৈরবগঞ্জ বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ফণিভূষণ রায় চৌধুরীর সহায়তায় এগুলো ফিরে পেয়েছে তাদের আপন ঠিকানা।

কাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শ্রীমঙ্গল পৌরশহরের মাস্টারপাড়া আবাসিক এলাকায় ফণিভূষণ রায় চৌধুরীর বাসায় ৫টি বিপন্ন ছোট বাঘডাশের ছানা শিশুদের হাতে ধরা পড়ে। পার্শ্ববর্তী স’মিলের পুরাতন কাঠগুলো সরানোর সময় ছানাগুলো বেরিয়ে এসে আত্মরক্ষার্থে এদিক-ওদিক ছুটোছুটি করতে থাকে। খবর পেয়ে ফণিভূষণ ছোট বাঘডাশের ছানাগুলো উদ্ধার করে নিজের কাছে আগলে রাখেন।

ফণিভূষণ রায় চৌধুরী বলেন, ‘ছানাগুলোর বিষয়ে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেবের সঙ্গে যোগাযোগ করি। তিনি যেখান থেকে ছানাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে সেখানে রেখে আসার পরামর্শ দেন। পরে ছানাগুলো সজল দেবের পরামর্শে ওই স্থানে রেখে আসি। পরে মা বাঘডাশ এসে ছানাগুলো নিয়ে যায়।’

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বলেন, ‘এই ছানাগুলো প্রকৃতিতে বেঁচে যাবার শতভাগ সম্ভাবনা রয়েছে। আমরা এভাবেই বন্যপ্রাণীদের রেসকিউ করে থাকি।’

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক এবং বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ ড. মনিরুল এইচ খান বলেন, ‘‘এগুলো ‘ছোট বাঘডাশ’ এর ছানা। এরা নিশাচর এবং বৃক্ষচারী প্রাণী। এ প্রাণীটি আমাদের পরিবেশের জন্য উপকারী। তাদের আবাসস্থল এবং প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংস হওয়ার কারণে বর্তমানে অবস্থা বিপন্ন।’’

শেয়ার করুন