কমলগঞ্জে বাংলাদেশ চা-শ্রমিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভায়- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন ভারত থেকে চোরাই চা পাতা আনা বন্ধ করতে হবে-

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি.
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ২০১৮-২০১৯ ইং বার্ষিক সাধারণ সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, বর্তমান শেখ হাসিনা সরকারের আমলে চা শ্রমিকরা এখন অনেক পরিবর্তন হয়েছে। তাদের জীবনমান উন্নয়ন হয়েছে। চা শ্রমিক সন্তানরা শিক্ষিত হচ্ছে। বিসিএস ক্যাডার হয়েছে। বিভিন্ন দপ্তরের তাদের চাকুরি হচ্ছে।
চা বাগানের উন্নয়নের কথা বলেতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, চোরাই পথে ভারত থেকে চা পাতা আনা বন্ধ করতে হবে।এতে দেশীয় বাজারের কোয়ালিটি নষ্ট হচ্ছে।

শনিবার ১২ জানুয়ারী দুপুরের দিকে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর চা বাগান মন্ডপে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাখনলাল কর্মকারের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক চিফ হুইপ আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এমপি, কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রনধীর কুমার দেব, বাংলাদেশ চা সংসদের চেয়ারম্যান এম. শাহ আলম।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য ও সম্পাদকীয় রিপোর্ট পাঠ করেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রামভজন কৈরী।
এসময় বক্তব্য রাখেন রাখেন বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা ইনজিজিনাস এন্ড ট্রাইবাল পিপলস প্রজেক্ট এর ন্যাশনাল প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর আলেক্সসিউস চিছাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা, জাতীয় সংগীত ও পায়রা উড়িয়ে সভা উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি পরিবেশ মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি। পরে ৭টি ভ্যালীর দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। বার্ষিক সাধারণ বাংলাদেশের ৭টি ভ্যালীর সভাপতি-সম্পাদক, বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি-সম্পাদক, শ্রমিক নেতৃবৃন্দসহ ২৩০টি চা বাগানের প্রায় ৬ হাজার চা শ্রমিকবৃন্দ অনুষ্টানে উপস্থিত হন। বিকাল ৫টার দিকে চা শ্রমিক ইউনিয়নের দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চা শ্রমিক নেতা সজল কৈরী ও মীনা রবিদাস।

 

শেয়ার করুন