জামালপুরে রেললাইনের ক্লিপ চুরির অভিযোগে গ্রেপ্তার ৬ আসামীকে আদালতে সোপর্দ

এএসএম সা’-আদাত উল করীমঃ
জামালপুর-ঢাকা রুটের জামালপুর এরিয়ার/ সেকশনে (ইআরসি) রেললাইনের লোহার ইলাস্টিক রেল ক্লিপ চুরির ঘটনার সাথে জড়িত সংঘবদ্ধ চক্রের ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে রেলওয়ে থানা পুলিশ। শনি
৩০ জানুয়ারি সকালে ক্লিপসহ মাদরাসাছাত্র দুই কিশোরকে হাতেনাতে ধরা হয়। পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রাতেই শেরপুরের নকলা উপজেলা থেকে রেলওয়ে থানা পুলিশ দু’জন ভাঙ্গারি মালামালের ব্যবসায়ী ও আরো দুই কিশোর মাদরাসাছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ঘটনায় রেলওয়ে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।
গ্রেপ্তারকৃত ৬জনের বাড়ি শেরপুর জেলার নকলা উপজেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায়। তারা হলেন- ভাঙ্গারি মালামালের ব্যবসায়ী জালালপুর গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে মো. হযরত আলী (৭০), গড়েরগাঁও গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান চঞ্চল (৪০), কায়দা পশ্চিপাড়া গ্রামের শুক্কুর আলীর ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মো. আলবার আছিফ (১৫) ও বাদশা মিয়ার ছেলে নবম শ্রেণির ছাত্র মামুন মিয়া (১৪), গড়েরগাঁও গ্রামের ছামেদুল ইসলামের ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র শাহেদুল ইসলাম আহাদ ওরফে শাকিল (১৫) ও কুর্শা গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে নবম শ্রেণির ছাত্র শাহরুল ইসলাম শাহান (১৫)। এই চার কিশোর নকলা শাহরিয়া ফাজিল মাদরাসার ছাত্র।
তাদের মধ্যে ৩০ জানুয়ারি সকাল ১১টার দিকে আলবার ও মামুনকে জামালপুরের পিয়ারপুর রেলস্টেশন এলাকায় ক্লিপ চুরির সময় হাতে নাতে আটক করা হয়। তাদের কাছে থেকে স্কুলব্যাগে ভরা ৩২টি ক্লিপ ও একটি বাইসাইকেল জব্দ করা হয়। এ ব্যাপারে রেলওয়ের জামালপুর সেকশনের উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী কবীর হোসেন রানা বাদী হয়ে ওই দুই কিশোরকে আসামি করে ৩০ জানুয়ারি রাতে রেলওয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তাদের বিরুদ্ধে রেলওয়ের আইনের ১২৬ ধারায় ধ্বংসাত্মক অপরাধ সংঘটনের উদ্দেশ্যে সরকারি সম্পদ রেললাইনের ক্লিপ চুরি করার অভিযোগ আনা হয়েছে।
পরে ওই দুই কিশোরের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী জামালপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাপস চন্দ্র পণ্ডিত নকলা থানা পুলিশের সহায়তায় ৩০ জানুয়ারি রাতভর নকলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আরও ৪ জনকে আটক করে একই মামলায় তাদেরকে আসামিভুক্ত করেছেন। তাদের মধ্যে ভাঙ্গারি মালামাল ব্যবসায়ী হজরত আলীর দোকান থেকে আরো ৫২টি রেলক্লিপ জব্দ করা হয়েছে। এই ৫২টি ক্লিপ সপ্তাহ খানেক আগে পিয়ারপুর রেলস্টেশন এলাকা থেকে চুরি করে ২০ টাকা কেজি দরে ভাঙ্গারি দোকানে বিক্রি করে দেয় বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে গ্রেপ্তার কিশোর শাহারুল।
জামালপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাপস চন্দ্র পণ্ডিত সংবাদ মাধ্যমকে বলেন রেললাইনের ক্লিপ চুরির অভিযোগে গ্রেপ্তার ছয় আসামিকে শনিবার ১ ফেব্রুয়ারি সকালে জামালপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। রেললাইনের ক্লিপ চুরির ফলে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার আশঙ্কা থেকে যায়। তাই ট্রেন দুর্ঘটনা এড়াতে সংঘবদ্ধ চোরদের ধরতে রেলওয়ে পুলিশ তৎপর রয়েছে।
শেয়ার করুন