ন্যায্য মূল্যে পণ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর কর্তৃক অভিযান

“প্রেস বিজ্ঞপ্তি,এপ্রিল ২৯, ২০২০ খ্রি.
আজ ২৯ এপ্রিল ২০২০ খ্রি: তারিখে আর্মস পুলিশ ব্যাটেলিয়ান ফোর্সের সহযোগিতায় সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয় কর্তৃক মৌলভীবাজার সদর ও রাজনগর উপজেলার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর বিভিন্ন হাট বাজার ও দোকানে মনিটরিং ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এই সময় সদর উপজেলার কোর্ট রোড, টিসি মার্কেট এবং রাজনগর উপজেলার মুন্সিবাজার, ভেতর বাজার, কালী বাড়ী রোড, সিলেট রোডসহ বিভিন্ন জায়গায় তদারকি করে ব্যবসায়ীদের সর্বনিম্ন লাভে পণ্য সামগ্রী বিক্রয় করার জন্য অনুরোধ করা হয়। খুচরা ব্যবসায়ীদের ক্রয় ভাউচারের সাথে বিক্রয়মূল্য যাচাই করা হয়। অনেক মানুষের আয় কম এবং অনেকের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে উল্লেখ করে ব্যবসায়ীদেরকে সর্বনিম্ন লাভে বিক্রয় করা জন্য অনুরোধ জানানো হয়। চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের চাঁদনীঘাট ব্রিজের পাশে নিছা এন্টারপ্রাইজ এর ট্রাক ও শাহী ঈদগাহের পাশে মারুফ এন্টারপ্রাইজের ট্রাকে টিসিবি কর্তৃক ন্যায্য মূল্যে পণ্য সামগ্রী বিক্রয় হচ্ছে। উক্ত অভিযানে তেল, চিনি, ডাল, খেজুর ও ছোলা বিক্রির কাজে নিয়োজিত ট্রাক ডিলারের কার্যক্রম তদারকি করা হয়।  সয়াবিন তেল ৮০ টাকা লিটার, চিনি ৫০ টাকা কেজি, ডাল ৫০ টাকা কেজি, ছোলা ৬০ টাকা কেজি, খেজুর ১২০ টাকা কেজি দরে টিসিবির ট্রাক ডিলারগণ বিক্রয় করছেন। উক্ত তদারকি অভিযানে মূল্য তালিকা না রাখা, মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য পণ্য বিক্রয় করা, বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে কালী বাড়ী রোডে অবস্থিত অসীম সবজি ভান্ডারকে  ২ হাজার টাকা, সিলেট রোডে অবস্থিত মেসার্স আছিদ এন্ড সন্সকে  ৫ হাজার টাকা, মুন্সিবাজারে অবস্থিত কাত্তান ষ্টোরকে ১ হাজার টাকা, ভেতর বাজারে অবস্থিত সামিয়া ষ্টোরকে ১ হাজার টাকাসহ মোট ৯ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করা হয়। পেঁয়াজ, রসুন, আদা, চাল, তেল, শাক-সবজি, কাচামালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী ন্যায্য মূল্যে প্রাপ্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এবং কেউ যাতে খাদ্য মজুত করে কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করতে না পারে, ভোগ্য পণ্য সামগ্রীর দাম যেন কেউ অনৈতিক ভাবে বাড়াতে না পারে সেই ক্ষেত্রে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক প্রতিনিয়ত বাজার মনিটরিং কার্যক্রম চলমান থাকবে।  
শেয়ার করুন