মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ৫টি আইসিইউ বেডে রোগি ভর্তি

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি.

মৌলভীবাজার জেলায় করোনার সংক্রমণ ক্রমেই বেড়ে চলছে।  মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে করোনা ইউনিটের ৫০টি বেডে ভর্তি রয়েছেন রোগি। আইসিইউ যে ৫টি বেড ছিল তাও খালি নেই।
স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রতিদিনই জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসন জেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। পাশাপাশি মৌলভীবাজার পৌরসভা করোনা নিয়ন্ত্রণে জনসাধারণকে সচেতন করতে প্রচার-প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ করছে।
মৌলভীবাজার পৌর সভার মেয়র মো. মো.ফজলুর রহমান জানান, জেলার করোনা পরিস্থিতি খারাপের দিকে দ্রæত চলে যাচ্ছে। হাসপাতালের করোনা ইউনিট প্রায় পরিপূর্ণ হয়ে গেছে। আইসিইতে একটি বেডও খালি নেই। তিনি সকলকে সচেতন ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবায়ন করেন।
সিলেট বিভাগের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ জেলা মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা. চৌধুরী জালাল উদ্দিন মুর্শেদ জানান, জেলা সদরে করোনা রোগীদের জন্য ৫টি আইসিইউ বেড রয়েছে। জেলায় ১৩০টি আইসোলেশন শয্যা রয়েছে। এর মধ্যে জেলা সদরে মাত্র ৫০টি, বাকি উপজেলাগুলোতে।
তিনি আরও বলেন,বেশি বয়স্ক রোগিদের আইসিইউ প্রয়োজন হয়। কম বয়সী রোগিদের আইসিইউ লাগে না। অক্সিজেন দিয়ে রোগিকে সুস্থ করা হচ্ছে। আইসিইউতে বেড না পেয়ে রোগি মারা গেছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকে এপর্যন্ত দুজন রোগিকে সিলেটে রেফার্ড করেছি, কেউ মারা যাননি। হাসপাতাল এবং বাসা,বাড়িতে টিটমেন্ট নিয়ে করোনা রোগিরা সুস্থ হয়ে উঠছেন।

মৌলভীবাজারে জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বলেন, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য ডেডিকেটেড বেডের প্রায় পূর্ণ হয়ে গিয়েছে। আইসিইউ বেড সবগুলি সম্পূর্ণ হয়ে গিয়েছে কোন আইসিইউ বেড খালি নেই।

শেয়ার করুন