চরফ্যাশনে অটোরিকসা চালক হত্যার ঘটনায় আরো দুই আসামী গ্রেফতার

চরফ্যাশন(ভোলা)প্রতিনিধি:

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা অটোরিকসা চালক হারুন অর রশিদ (২০) হত্যার রসহস্য উৎঘাটিত হচ্ছে। হত্যায় জড়িত ৪ আসামির মধ্যে ইতিমধ্যে ৩ জনকেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে জবাইয়ের কাজে ব্যবহৃত ধারালো ছুরি। বুধবার (৩ জানুয়ারি) বিকেলে সহকারী পুলিশ সুপার মেহদী হাসান সাংবাদিকদেরকে প্রেস ব্রিফিং দিয়ে এমন তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, চরমাদ্রাজে হারুন হত্যার ঘটনায় এই পর্যন্ত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার হিজলা উপজেলা থেকে রিয়াজ (৩৩), ঢাকা থেকে র‌্যাবের সহযোগিতায় আবু বক্কর ছিদ্দিক ওরফে ওমর (২০) গ্রেফতার করা হয়েছে। উভয় আসামী চরমাদ্রাজ গ্রামের বাসিন্দা। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তারা থানা হাজতখানায় রয়েছে। ইতিপূর্বে পুলিশ লালমোহান উপজেলার ফুলবাগিচা গ্রাম থেকে হারুনের রিকসাটি উদ্ধার করা হয়েছে। এই আবু বক্কর ওরফে ওমর ও রিয়াজের নামক দু’আসামীর ভাষ্যমতে ধারালো ছুরিটি চরফ্যাশন বেতুয়া সড়ক থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছেন। এর আগে মিজান (২০) কে পুলিশ গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। এছাড়া অপর আসামী রুবেল (২২) পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের পুলিশ তৎপর রয়েছে। রিয়াজ ও রুবেল আপন ভাই চরমাদ্রাজের মো. শাহাজানের ছেলে। চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ শাখাওয়াত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা উৎঘাটিত করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। আসামীগণ হত্যার ঘটনা স্বীকার করেছেন। আদালত তাদের বিচার করবেন। উল্লেখ্য, গত ২০ ডিসেম্বর চরমাদ্রাজে রাতে চরমাদ্রাজ ও হাজারীগঞ্জ সীমান্ত মেঘনার নদীর পাড় থেকে পুলিশ হারুনের গালাকাটা জবাইকৃত লাশ উদ্ধার করেছেন।

শেয়ার করুন