কমলগঞ্জে আওয়ামীলীগ অফিস ভাংচুর। হামলায়  আহত ১০

আকাশ আহম্মেদ

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ইসলামপুর ইউনিয়নের কুরমা বাজারে নির্বাচনের রেশ ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এসময় স্থানীয় আওয়ামীলীগ অফিস ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে এঘটনাটি ঘটে। এদিন  বিকেলে   প্রথমে কুরমাঘাটে স্থানীয় আওয়ামীলীগ অফিসে ঢুকে মতিউর নামে বিমান বাহিনীর চাকরিচ্যুত কর্মচারী নেছার মিয়া নামে একজনকে মারধর করে এবং এসময় অফিসে রক্ষিত শেখ হাসিনা  ও বঙ্গবন্ধুর  ছবি ভাংচুর করে । এসময় উত্তেজিত হয়ে উভয়ের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। পরে এরই রেশ ধরে স্থানীয় কাদুর দোকান নামক স্থানে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হলে নেছার মিয়া, আজু মিয়া, বদরুল মিয়া ও মতিউর রহমান, কাওসার, বেলাল ও ভুষন নামে কয়েকজন আহত হয়। এসময় দোকানপাঠ ভাংচুর করারও অভিযোগ উঠে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ও নিচ্ছেন।স্থানীয় ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মতিউর দীর্ঘদিন থেকে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। সামাজিক মাধ্যমে সে প্রায় সময় নানা মন্তব্য করে। তিনি বলেন, মতিউর রহমান প্রথমে বিমান বাহিনীতে কর্মরত ছিল। সেখানে সে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করায় তার চাকরী চলে যায় ও জেল খাটে। এর পর থেকে বাড়িতে এসে প্রধানমন্ত্রী ও শেখ মুজিবের ছবি দেখলেই ক্ষেপে গিয়ে ছিড়ে ফেলে।  সেদিন এমন ঘটনা ঘটালে সেখান থেকে তার সাথে অন্যদের কথাকাটাকাটির জেল ধরে সংঘর্ষ হয়।

শেয়ার করুন