কমলগঞ্জে পানি নিষ্কাশনে প্রতিকূলতায় ৩০০ একর আমন বিনষ্ট


আকাশ আহমদ:
শুধুমাত্র পানি নিষ্কাশনে প্রতিকূলতার কারণে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ৯/১০ দিন ধরে ৩০০ একর রোপা আমন নিমজ্জিত। কৃষকরা বলছেন সব চারা পচে বিনষ্ট হয়ে গেছে। উপজেলার আদমপুর ও ইসলামপুর ইউনিয়নের শতাধিক কৃষকের হাড় ভাঙা পরিশ্রম পানির নীচেই তলিয়ে গেছে। উত্তরভাগ,মধ্যভাগ,নোয়াগাঁও, কালারায়বিল,শ্রীপুর, পাথারীগাঁও গ্রামের ওয়াসিম মিয়া, আলম মিয়া, ,প্রসন্ন সিংহ, সুশীল সিংহ,জমসেদ আলী, নিশি কান্ত প্রমুখ কৃষকদের সাথে আলাপকালে জানা যায়, বিগত এক সপ্তাহ টানা বৃষ্টি আর উজান থেকে বয়ে আসা ঢলে এসব গ্রামের ফসলী জমি তলিয়ে গেছে। স্থানীয় নৈনাছড়া নদীতে মাছ ধরার জন্য বাঁশের খাঁটি, নদীর পাশ ছোট হওয়া এবং এ নদীতে দীর্ঘদিন ধরে নির্মাণাধীন একটি ব্রীজের ডাইভারসন সরু থাকায় পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না। মংগলবার সারা দিন আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জনি খাঁন ও দুই ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ নিমজ্জিত ফসলী জমি পরিদর্শন করেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সাথে কথা বলেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জনি খাঁন জানান, মূলত পানি নিষ্কাশনে ব্যপক প্রতিকূলতা নদীর পানি প্রবাহে বাধায় আমনের ফলন ব্যাহত হচ্ছে। নির্মাণাধীন ব্রীজের ডাইভারসন সরু থাকায় পানি নিষ্কাশন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ বিষয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিফাত উদ্দিন , দ্রুত এ সব সমস্যা নিরসনে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

 

শেয়ার করুন