মাধবপুরে নারীর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই ।। জনমনে আতংক সৃষ্টি

মাধবপুর প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের শিয়ালউড়ী গ্রামের মরহুম আব্দুর রহিমের স্ত্রীর গলা থেকে স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে বাড়ির পিছনে শিয়ালউড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাস্তার দিকে হাটতে বাহির হন আব্দুর রহিমের স্ত্রী মাফিয়া খাতুন (৬৫)। রাস্তার পাশে কবরস্থানে আগে থেকে উৎপেতে থাকা ছিনতাইকারী পিছনদিক থেকে এসে বাজারের ব্যাগে দিয়ে মুখসহ মাথা ঢেকে পেলেন। তারপর গলায় থাকা দেড় ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ও এমনকি হাতের বালা খুলতে চেস্টা করেন কিন্তু তার চিৎকারে আশেপাশের মহিলারা দৌড়ে আসলে চেইন নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান চিনতাইকারী।

বর্তমানে মফস্বল এলাকায় একটি চক্র নারী-পুরুষ উভয় পক্ষ মিলে এই ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত হচ্ছে। এমনকি মোটরসাইকেলে করে আসা মাদকসেবীরাও মফস্বল রাস্তা থেকে পুলিশের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন মানুষের নিকট থেকে ছিনতাই করে আসছে। গত কয়েক দিন আগে হরষপুর রেলস্টেশনের দক্ষিনে বেগম রোকেয়া কিন্ডারগার্টেন স্কুলের ৩/৪টি শিশুর বাচ্চাদের অপহরণ করে সুলতানপুরের রাস্তায় নিয়ে তাদের কানে থাকা স্বর্ণের দূল খুলে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় একটি মহিলা ছিনতাইকারী।

স্থানীয়রা জানান, এর কয়েক মাস আগে হরষপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর সামনে থেকে নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক এক অভিভাবকের গলাই থাকা অনুমানিক প্রায় এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে পালিয়ে ছিনতাইকারী। ভুক্তভোগী মাফিয়া খাতুন জানান, তার ৩ ছেলে আর্মিতে চাকুরি করেন। ছোট ছেলে ইব্রাহীম বেতন পেয়ে এবারের ঈদে মাকে দেড় ভরি ওজনের চেইন উপহার দেন। আজ সেই চেইনটি ছিনতাইকারী নিয়ে গেল।

স্থানীয় চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ পারুল জানান, দিনে দুপুরে এমন একটি ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি যে কোন উপায়ে ছিনতাইকারীকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে কঠোরভাবে শাস্তি দিতে হবে।  এ ব্যাপারে তিনিও প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।  এই ঘটনায় জনমনে আতংকের সৃষ্টি হয়েছে। তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে বিভিন্ন মহলের স্থানীয়রা।

৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার বিল্লাল মিয়াকে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মৌসুমি ক্রীড়া চক্রের সভাপতি ও সদস্যরাও এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। এই বিষয়ে প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

সম্প্রতি উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় এমন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

শেয়ার করুন